Depin প্রযুক্তি কি ও এটার ব্যবহার ?


আসসালামু আলাইকুম! আশা করি সবাই ভালো আছেন !  

আজকে আপনাদের মাঝে  নতুন ব্লকচেইন Topic নিয়ে হাজির হলাম!

আশাকরি পোস্ট পড়ার মাধ্যমে নতুন কিছু শিখতে পারবেন !

Depin এর পুর্নরুপ হলো “decentralized physical infrastructure networks”

 

Depin কে বুঝতে হলে আমাদেরকে আগে network infrastructure কি জিনিস সেটা বুঝতে হবে !

Network infrastructure হলো কোন নেটওয়ার্ক এর hardware যেমনঃ

    • Routers
    • Switches
    • LAN cards
    • Wireless routers
    • Cable

এবং software যেমনঃ

Networking Software:

    • Network operations and management
    • Operating systems
    • Network security applications

এসব দিয়ে ইন্টারনেট এর সাথে সংযুক্ত হয়ে ডাটা আদানপ্রদান করা এর পুরো সমন্বয়কে বলা হয়!

এটা মানুষ,কম্পিউটার, ও ইন্টারনেট এর মাঝে পুরো যোগাযোগব্যবস্থা হিসেবে কাজ করে!

Depin এর সংজ্ঞা ঃ

তাহলে depin হলো এই network infrastructure কে blockchain প্রযুক্তির সাহায্য decentralized বা বিকেন্দ্রীভূত আকারে করা!

depin হলো এমন কিছু  ব্লকচেইন ভিত্তিক কোম্পানি যেসব সাধারন user দেরকে token Reward দেয় বিভিন্নরকম service  দেয়ার বিনিময়ে!এখানে আপনি বিভিন্নরকম ডাটা দেওয়ার মাধ্যমে বিভিন্নভাবে আয় করতে পারবেন!যেমনঃ মোবাইলে টোকেন মাইনিং করে,ওয়াইফাই দিয়ে,লোকেশন ডাটা দিয়ে,ছবি আপলোড করলে,বিভিন্ন app ব্যবহার করে!

 

এখানে blockchain প্রযুক্তি ব্যবহার করে বিভিন্ন প্রকার বাস্তব জীবনের বিভিন্ন কাজ করা যায়।


Depin এর usecase বা প্রয়োগক্ষেত্রঃ

1) DeAI বা decentralized artificial intelligence কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাতে!
2) environmental project পরিবেশ রক্ষা করে এমন কাজে!3) energy বা বিদ্যুৎ,সোলার এসব কাজে!
4) location mapping ডিজিটাল ডিভাইস এর সাহায্য লোকেশন এর ম্যাপ বা ডাটাবেস বানানো!
5) mobility বা যানবাহন,পরিবহন কাজে!6) smart city
7) smart home বা বাসায় বিভিন্ন স্মার্ট ডিভাইস এর ব্যবহার!
8) 5G প্রযুক্তি!
9) Health বা স্বাস্থ্যখাতে ব্যবহার!
10)wireless,Bluetooth এসব কাজে ব্যবহার!
11) File Storage বা online cloud storage এর কাজে!
12) database তৈরিতে!
13) bandwidth বা vpn এর কাজে!
14) compute বা উপরের সবগুলো ক্ষেত্র থেকে Data collect করে  analyze এর জন্য!

আজকে সহজলব্ধ ভাষায় একটা depin project এর ব্যবহার বর্ননা করবো।
Dewifi বা Decentralized Wifi হল wifi ব্যবহার করার মাধ্যমে আয় !

Helium হলো এমন একটা ব্যবস্থা! এই কোম্পানী ২০১৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়!

এই কোম্পানী প্রায় ১০ লাখ মাইনার হটস্পট বানিয়েছে!

ইতিমধ্য ৯ লাখ ৩০ হাজার মাইনার ব্যবহার হয়ে গেছে!

আপনাকে তাদের থেকে মাইনার কিনে নিতে হবে!
এখানে  Token আয় বা mining এর জন্য  Gpu বা  cpu use না করে  router ব্যবহার করে data share করে   token earn করা যায়!

helium token আয় করার জন্য একটা hotspot লাগে যেটা বিভিন্নরকম  data যেমন আবহাওয়া,স্থান এসব তথ্য পাঠায়! সেসব তথ্য দেয়ার মাধ্যমে আপনি HNT Token earn করতে পারবেন! per day 0.12 Hnt token আয় করা যায়!

এই Hotspot দেয়ার মাধ্যমে আপনি অন্যদেরকে ইন্টারনেট চালাতে দিতে পারবেন!

এবং 5G ইন্টারনেট সেবাও দেয়া যায়!

এখানে দুটো নতুন প্রযুক্তির ধারনা দেই সেটা হলো

LoRaWAN stands for Long Range Wide Area Network

যেখানে সাধারন wifi network গুলো পরস্পর সংযুক্ত করে বিশাল  wifi network বানানো হয়!

এখানে সবগুলো হটস্পটগুলো একসাথে বিশাল একটা নেটওয়ার্ক তৈরি করে যেটাতে ইন্টারনেট চালানো যায়!

Proof-of-coverage (PoC) mechanism

Proof-of-coverage (PoC), হলো একটা নতুন ধারনা ! যেই alogorithm ব্যবহার করে helium company নিশ্চিতভাবে জানার জন্য যে  মাইনিং এ ব্যবহার করা hotspot গুলো ঠিকঠাকভাবে সব  location ও wifi এর তথ্য ঠিকঠাকমত পাঠাচ্ছে কিনা তা নিশ্চিত হওয়ার জন্য! এটা helium company ব্যবহার করে  hotspot দিয়ে location ও  wifi coverage দেয়ার জন্য!এই হিসেবেই নতুন টোকেন মাইনিং হয়!

যদি আমার এই পোস্টটি ভালো লেগে থাকে তাহলে আমার টেলিগ্রাম চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব এর অনুরোধ থাকলো!

এখানে আমি বিভিন্ন রকম ব্লকচেইন প্রযুক্তি নিয়ে তথ্য share করি!


এভাবেই Depin প্রযুক্তি মানুষদের জীবন সহজ করছে ব্লকচেইন এর মাধ্যমে এবং আয়ের সুযোগ করছে সবার জন্য!

আপনার জন্য দুটি ওয়েবসাইট  লিংক দিচ্ছি  বিস্তারিত জানার জন্য

depinscan

depinhub

আপনি এই প্রযুক্তি নিয়ে আপনার মতামত কমেন্টে জানান!

আমি সামনে আরো লেখালেখি করবো Blockchain নিয়ে আপনার কোন জিনিস জানার থাকলে কমেন্টে লিখে জানাবেন!

ধন্যবাদ!

 



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *