C++ Programming হোক আপনার প্রথম ভাষা, নিজেকে নিয়ে যান স্বপ্ন জয়ের দ্বারপ্রান্তে। পর্ব – ১


আসসালামু আলাইকুম
কেমন আছেন সবাই, আশা করি সকলে ভালো আছেন। অনেক দিন যাবৎ ভাবছিলাম, আপনাদের জন্য c++ প্রোগ্রামিং নিয়ে কিছু লিখার। আজকে থেকে সেই যাত্রা শুরু করলাম। আপনাদের সারা পেলে আস্তে আস্তে এই বিষয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে পাড়বো।
আমি চেষ্টা করবো সব থেকে সহজ উপায়ে আপনাদের কাছে c++ প্রোগ্রামিং ল্যাঙগুয়েজ টাকে আপনাদের নিকট উপস্থাপন করা।
শুরুতে একটি কথা, এই কোর্স টি ক্লাস ৮ পড়ুয়া শিক্ষারর্থী ও বুঝতে পাড়বে ও করতে পাড়বে।
তাহলে চলুন, পোস্ট শুরু করি।

C++ প্রোগ্রামিং এর ধারণাঃ

C++ প্রোগ্রামিং মূলত oop ধারণার উপর তৈরি। এটি C প্রোগ্রামিং এর বর্ধিত রূপ। তাই যাদের C প্রোগ্রামিং জানা আছে তাদের জন্য c++ বোঝাটা মোটেও কঠিন মনে হবে না। তবে C++ যেহেতু C এর বর্ধিত রূপ, সেহেতু এই প্রোগ্রামিং ভাষায় আপনি অনেক কিছু নতুন পাবেন। যা C এর ধারণার বিপরীত। যেমন আপনি C প্রোগ্রামিং এ যে সকল ডাটা টাইপ জেনে ছিলেন, এই সকল বিষয় একই। তবে C++ আমরা আরো কিছু ডাটা টাইপ নিয়ে জানবো, যেমনঃ

  1. User Define Datatype
  2. Build in Datatype
  3. Derived Datatype

এই সকল বিষয় গুলো আমরা আস্তে আস্তে জানার চেষ্টা করবো। এর আগে আমরা OOP সম্পর্কে একটি পরিপূরর্ন ধারণা নিয়ে নেই।

OOP টা আসলে কি?

পূর্বের C Programming মূলত পসিডিউর প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়ে মডেল ফলো করা হতো। যা ছিলো ফাংশন বেইজ। যেখানে আমরা যখন একই ডাটা নিয়ে একাধীক কাজ করার প্রয়োজন হতো, তখন C আমাদের সেই সুবিধা দিতে পারতো না। এর জন্য আমাদের একাধিক ফাংশন তৈরি করে সেই কাজটি করা লাগতো। যার জন্য আমাদের প্রোগ্রামিং টি ভুল হওয়ার সম্ভাবনা বেশি ছিলো।

এই সমস্যা থেকে বের হওয়ার জন্য OOP ধারণা নিয়ে C++ তৈরি করা হয়েছিল। OOP সম্পূর্ণ রুপ হচ্ছেঃ
O= Object

O= Oriented

P= Programming

নাম শুনেই বুঝতে পারছেন, এই Language টিতে Object কে অনেক বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে।যদি উদাহরণ দিয়ে বুজাতে চাই, তাহলে বিষয়টি এমন হবে, আমরা বাস্তব জগতে যাই দেখি তা এক একটি অবজেক্ট। সোজা কথায়, এমন আমাদের উদাহরণ দিয়ে বলতে পারি,

“আমরা মানুষ, আমাদের একটি বৈশিষ্ট্য আছে,
যেমনঃ আমাদের দুইটি চোখ, একটি নাক, দুইটি কান, একটি মুখ, দুইটি হাত ও পা আছে।
এই বৈশিষ্ট্য নিয়ে আমারা মানুষ। তাহলেই এই মানুষ একটি জাতি আমরা বলতে পারি। কারণ এই বৈশিষ্ট্য নিয়ে আমাদের চার পাশে অনেক মানুষ আছে, যাদের সকলের বৈশিষ্ট্য একই।
এখন আমরা খুব সহজেই আমাদের বৈশিষ্ট্য দিয়ে সকল মানুষ পরিচয় করিয়ে দিতে পারবো। “

এই ধারণাটি হচ্চছে OOP প্রতিটি মানুষ বৈশিষ্ট্য নিয়ে আমরা OOP তে একটি ক্লাস তৈরি করি ও তার মধ্যে আমাদের সকল বৈশিষ্ট্য গুলো দেওয়া হয়।
এরপর, প্রতিটি মানুষ এর জন্য এক একটি অবজেক্ট তৈরি করে, প্রতিটি মানুষ এর বৈশিষ্ট্য দেখানো হয়।

পরবর্তীতে আমরা OOP এর OOP principles নিয়ে জানার চেষ্টা করবো। আজকে মতো এখানে বিদায়। C++ কোর্সটি যদি আপনার বাজেট অনুযায়ী করতে চান তাহলে, আমাদের গ্রুপ এ যুক্ত হোন। ৫০ জন স্টুডেন্ট নিয়ে একটি ব্যাচ তৈরি করে কোর্সটি লাইভ ক্লাস এর মাধ্যমে করানো হবে।
এর ফলে আপনার বিশ্ববিদ্যালয় ও গুগল এর যাত্র আরো সহজ হবে বলে আমি মনে করি।
তাই Course টি যদি আপনার প্রয়োজন বলে মনে হয় তো যোগাযোগ করতে পারেন,
লিংক, Join Telegram

আমার ফেসবুক My Facebook



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *