ফটো এডিট করার সফটওয়্যার কোনগুলো জেনে নিন


সকলেই স্মার্টফোন ব্যবহার করে ছবি তুলে থাকে আর এই ছবিকে সুন্দর করার জন্য এডিট করার প্রয়োজন হয়। আর এই জন্য আমরা আজকে আলোচনা করব ফটো এডিট করার সফটওয়্যার সম্পর্কে। আপনারা যদি জেনে না থাকেন ফটো এডিট কিভাবে করবেন তাহলে আজকের পোস্টটি আপনার জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ।ফটো এডিট করার বিভিন্ন সফটওয়্যার সম্পর্কে জানতে পোস্টটি সম্পূর্ণ মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

আধুনিক যুগে স্মার্টফোন ব্যবহার করেনা এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া যাবে না। প্রত্যেক মানুষের হাতেই এখন রয়েছে স্মার্টফোন। বর্তমানে সবাই এই স্মার্টফোন ব্যবহার করে ছবি বা ফটো তুলে থাকে। তবে এই ফটোকে সুন্দর আকর্ষণীয় করার জন্য ফটোতে কিছু কাজ করার প্রয়োজন হয়। আর এই ফটোতে কিছু কাজ করাকে ফটো এডিট বলা হয়ে থাকে।

ফটো এডিট করার জন্য বিভিন্ন ধরনের সফটওয়্যার ও অ্যাপ্লিকেশন রয়েছে যা ব্যবহার করে আপনারা অনায়াসে আপনাদের ছবিগুলো সুন্দর মত এডিট করে ব্যবহার করতে পারবেন। তাই ফটো এডিট এবং সফটওয়্যার ডাউনলোড কিভাবে করবেন তা সম্পর্কে জানতে আর্টিকেলটি পড়তে থাকুন।

ফটো এডিট করার সফটওয়্যার 

বর্তমানে অনলাইনে অনেক ধরনের ছবি এডিট করার সফটওয়্যার রয়েছে। যা মধ্যে ফটো এডিট করার ভালো সফটওয়্যার খুঁজে পাওয়া মুশকিল। তাই আপনাদের জন্য আমরা ভালো কিছু  ফটো এডিটিং সফটওয়্যার সম্পর্কে তুলে ধরেছি। নিম্নে তা উল্লেখ করা হলো।

  • Adobe Photoshop cc
  • Adobe Lightroom
  • Snapseed Photo Editor
  • YouCam Perfect
  • Photoshop Express
  • Instasize Photo Editor
  • PhotoDirector AI Photo Editing Software
  • VSCO: Photo & Video Editor
  • Picsart AI Photo Editor, Video
  • Canva: Design, Photo & Video
  • AirBrush – AI Photo Editor
  • BeautyPlus – Retouch, Filters
  • Fotor Online photo editor

উক্ত সফটওয়্যার গুলো ব্যবহার করে আপনারা ফটো এডিট ইচ্ছামত করতে পারবেন। তবেই সফটওয়্যার গুলো ডাউনলোড করার কিছু নিয়ম রয়েছে। যা আমার একটু পরে জানতে পারবো।

ফটো এডিট করার সফটওয়্যার ডাউনলোড

সফটওয়্যার গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত সকল কিছু আলোচনা করা হবে। আপনি সফটওয়্যার গুলো সম্পর্কে জেনে বুঝে তারপর ডাউনলোড করবেন এবং জানতে পারবেন কিভাবে ডাউনলোড করতে হয়। আর কথা না বাড়িয়ে ফটো এডিট  সফটওয়্যার ডাউনলোড করে নেয়া যাক।

Adobe Photoshop cc

বর্তমানে সেরা সফটওয়্যার গুলোর মধ্যে এটি অন্যতম। এটি একটি কম্পিউটার সফটওয়্যার। কম্পিউটারের ছবি এডিট করার সফটওয়্যার গুলোর মধ্যে এটি অন্যতম। যারা কম্পিউটার ব্যবহার করেন তারা এই সফটওয়্যার দিয়ে ভালো মানের ছবি এডিট করতে পারবেন। বর্তমানে সফটওয়্যারটি প্রিমিয়াম ভার্সন রয়েছে যা কিনা ডলার দিয়ে কিনতে হয়। এছাড়া এই সফটওয়্যারটির ক্রাক ভার্সন পাওয়া যায় যা আপনি অনায়াসে ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারবেন।

এই সফটওয়্যারটির কিছু বিশেষ বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা আপনাদের জন্য খুবই কার্যকরী। যার ফলে ছবি বা ফটো ভালোমতো বিভিন্নভাবে এডিট করা যায়। আপনি এই সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করার জন্য softonic ওয়েবসাইটটিতে ভিজিট করতে পারেন। এই ওয়েবসাইট থেকে আপনারা উক্ত সফটওয়্যারটি ফ্রিতে ডাউনলোড করতে পারবেন।

Adobe Lightroom

Adobe Lightroom হল আরেকটি উচ্চ মানের ফটো এডিটিং সফটওয়্যার। যদিও এটি একটি প্রিমিয়াম সফ্টওয়্যার, উপলব্ধ মোবাইল ভার্সনটি আপনাকে বিনামূল্যে কিছু বৈশিষ্ট্য ব্যবহার করতে দেয়৷এই অ্যাপ্লিকেশনটিতে বিশেষ ফিল্টার রয়েছে যা সর্বশেষ প্রযুক্তি ব্যবহার করে তৈরি করা হয়েছে। বিভিন্ন রঙের সংমিশ্রণ তৈরি করা একটি চিত্রকে একটি উচ্চ মানের ছবিতে পরিবর্তন করতে পারে।বেশ কিছু ইফেক্ট যোগ করা হয়েছে যা আপনার ইমেজকে অন্য লেভেলে নিয়ে যাবে।

যেহেতু এই সফ্টওয়্যারটি ডেস্কটপ এবং মোবাইল ডিভাইসের জন্য তৈরি করা হয়েছে, তাই এটি আলাদাভাবে ডাউনলোড করতে হবে।বেশিরভাগ পেশাদার ফটোগ্রাফাররা লাইটরুম ব্যবহার করেন। তাই আপনি নিজে চেষ্টা করতে পারেন। এটি আপনার মোবাইল ডিভাইসে ডাউনলোড করতে, Google Play Store এ Adobe Lightroom সার্চ করবেন৷এই সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করতে getintopc.com ওয়েবসাইটে ভিজিট করুন। এবং সফটওয়্যার টির নাম লিখে সার্চ করুন।

Snapseed Photo Editor

যারা মোবাইল ব্যবহার করেন এবং মোবাইলে ছবি বা ফটো এডিট করতে চান তাদের জন্য এই সফটওয়্যারটি সবচেয়ে ভালো এবং জনপ্রিয় সফটওয়্যার। বর্তমানে মোবাইলের জন্য এটি সবচেয়ে বহুল ব্যবহৃত জনপ্রিয় ফটো এডিট সফটওয়্যার নামে পরিচিত। এমন কেউ নেই যে এটি ব্যবহার করেনি। এই সফটওয়্যারটি মোবাইল এবং আইফোনের জন্য অ্যাভেলেবেল রয়েছে অর্থাৎ অ্যান্ড্রয়েড ফোন এবং iphone এর জন্য তৈরি করা হয়েছে।

উক্ত সফটওয়্যারটি এন্ড্রয়েডে আপনারা গুগল প্লে স্টোরে ফ্রিতে পেয়ে যাবেন। এই সফটওয়্যারটি অলরেডি ১০০ মিলিয়ন প্লাস ডাউনলোড হয়ে গেছে তাহলে বুঝতে পারছেন কত জনপ্রিয় এই অ্যাপটি। এই সফটওয়্যারটি ব্যবহার করে আপনারা কিছু স্পেশাল প্রিসেট রয়েছে যা আপনার ছবিকে অন্য লেভেলে নিয়ে যাবে। এছাড়া রয়েছে বিভিন্ন ধরনের কালার ফিল্টার যা ব্যবহার করে ছবির কালার চেঞ্জ করতে পারবেন।

এছাড়া এই অ্যাপটিতে রয়েছে আরও বিভিন্ন ধরনের মোড যা আপনি ব্যবহার করে ছবি সুন্দর মত প্রফেশনাল ভাবে এডিট করতে পারবেন। আর এই অ্যাপটির ইন্টারফেস অনেক সুন্দর এবং সহজ। নতুন যে কেউ এই অ্যাপটি অনায়াসে ব্যবহার করতে পারবে এবং ফটো এডিট করতে পারবে। উক্ত অ্যাপটি ডাউনলোড করার জন্য আপনারা গুগল প্লে স্টোরে অ্যাপটির নাম লিখে সার্চ দিবেন দেখবেন সামনে চলে আসবে। তারপর ইন্সটল এ ক্লিক করে ডাউনলোড করুন।

YouCam Perfect

মোবাইল ডিভাইসের জন্য, YouCam পারফেক্ট মোবাইল অ্যাপ বিনামূল্যে ফ্রিতে পাওয়া যায়।এই অ্যাপটি আপনাকে বিভিন্ন উন্নত প্রভাব, ফ্রেম, অ্যানিমেশন এবং সম্পাদনা কৌশল সহ ছবি এডিট করা যায়। তাছাড়া, এই অ্যাপটিতে এক-ট্যাপ AI অবজেক্ট রিমুভাল ফিচার রয়েছে। একাধিক স্তর অর্থাৎ বিভিন্ন লেয়ার ব্যবহার করে ফটো এডিট করা যায়।

কাটআউট টুলটি বিভিন্ন বিনোদনমূলক এডিটিং কাজে ব্যবহার করা যেতে পারে। যেকোনো ধরনের ছবি অ্যানিমেটেড করা যেতে পারে। ফটো রিটাচিং একটি আলা আউটলুক প্রদান করতে ব্যবহার করা যায়। এছাড়া এই অ্যাপটি মোবাইল ফোন এবং আইওসে উভয়ের জন্য এভেলেবেল রয়েছে। আপনারা google play store এ গিয়ে উক্ত নামটি লিখে সার্চ দিলে পেয়ে যাবেন।

Photoshop Express

এটি একটি ফটোশপ এর মোবাইল ভার্সন বলা চলে। এটি এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে যে এই অ্যাপটি ব্যবহার করে কম্পিউটারের মতো ফটো এডিট করা যায়। আপনার এখানে কম্পিউটারের মত সকল টুলস এই অ্যাপে পেয়ে যাবেন। যাদের কম্পিউটার নেই তারা ফটোশপ এর পরিবর্তে এই মোবাইল অ্যাপটি ব্যবহার করতে পারেন। মূলত এটি মোবাইল ব্যবহারকারীদের জন্য তৈরি করা হয়েছে।

যাতে ব্যবহারকারীরা কম্পিউটারের ফটোশপ এর অনুভূতিটা পায়। বর্তমানে বেশিরভাগ প্রফেশনাল ফটোগ্রাফার এই অ্যাপটি ব্যবহার করে থাকে। তবে মোবাইল ফোনের জন্য এটি পেইড ভার্সন রয়েছে অর্থাৎ প্রিমিয়াম ভার্সন। যা আপনাকে কিনে ব্যবহার করতে হবে। ফ্রি ভার্সনে কিছু ফিচার রয়েছে যা আপনারা ব্যাবহার করতে পারবেন।

কিন্তু প্রফেশনাল লেভেলে আপনাকে প্রিমিয়াম ভার্সনে যেতে হবে। এই অ্যাপটি ব্যবহার করে আপনি ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড চেঞ্জ, ফটোর কালার চেঞ্জ, বিভিন্ন অ্যানিমেশন, ফটোর থিম চেঞ্জ এবং ফটো কাটিং সহ অনেক কিছু ফিচার পেয়ে যাবেন যা আপনি ব্যবহার করতে পারবেন। উক্ত অ্যাপটি গুগল প্লে স্টোরে পেয়ে যাবেন।

লেখকের মন্তব্য

আশা করছি আপনারা ফটো এডিটিং সফটওয়্যার সম্পর্কে জানতে পেরেছেন এবং কিভাবে ডাউনলোড করতে হয় তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। সাথে সাথে ফটো এডিট কোন সফটওয়্যারগুলো আপনার জন্য ভালো হবে তা নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। আর সফটওয়্যারগুলো কিভাবে ডাউনলোড করবেন তার ওয়েবসাইটের নাম এবং লিংক দেয়া হয়েছে।



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *